Youth Participation in Budget Analysis

‘মোট বাজেটের সিংহভাগ আসে জনগণের পরোক্ষ করের টাকা থেকে। কিন্তু বাজেট প্রণয়নের ক্ষেত্রে কেন জনগণের মতামত প্রদানের অবারিত সুযোগ থাকবে না? কেন নীতি-নির্ধারকদের কান পর্যন্ত পৌঁছাবে না অজপাড়া গ্রামের সমস্যা কবলিত মানুষের দাবি-দাওয়ার কথাগুলো?’ আলাপচারিতার ফাঁকে এভাবেই প্রশ্ন ছুড়ে দিচ্ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যলয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ও বাজেট বুট ক্যাম্পে অংশগ্রহণকারী মারজানা মাহমুদ।

সেইফটি অ্যান্ড রাইটস, গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলন এবং দ্যা এশিয়া ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে দ্বিতীয়বারের মতো সদ্য সম্পন্ন হয়েছে বাজেট বুট ক্যাম্প-২০২১। ঢাকা থেকে ৩৭ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত দেশের প্রথম আউটডোর অ্যাক্টিভিটি সংশ্লিষ্ট দ্যা বেইসক্যাম্পে তিনদিনব্যাপী এই আয়োজনে অংশ নেন ঢাকা, সিলেট, দিনাজপুর, বরিশাল, রাজশাহীসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ২০ জন সম্ভাবনময়ী তরুণ। জাতীয় বাজেট প্রণয়ন প্রক্রিয়া, বিশ্লেষণ, কাঠামোসহ বাজেট সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো নিয়ে এভাবেই নিজেদের অভিপ্রায়-অনুভূতি আর নানান প্রশ্ন ব্যক্ত করেন তরুণ প্রতিনিধিরা।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী কে এম রহমতুলস্নাহ রাহাত বলেন, বাজেট প্রণয়নে জনগণের সরাসরি অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা দরকার। বাজেটের সঙ্গে মানুষের দূরত্ব কমিয়ে আনার সময় এসেছে। সাধারণ জনগণ বাজেট সম্পর্কে যেন সবিস্তারে জানতে ও বুঝতে পারে, মতামত প্রদান করতে পারে সেই প্রক্রিয়া গ্রহণই সময়ের দাবি।

গাজীপুরের মাধবপুরে বেইস ক্যাম্পের নির্মল সবুজ আঙিনায় বুট ক্যাম্পটি ছিল তিনদিনব্যাপী। ব্যতিক্রমী এ আয়োজনে প্রাণসঞ্চারি ছিল বেইস ক্যাম্পের প্রাকৃতিক দৃশ্যপট। বিস্তৃত সবুজ মাঠ কিংবা মাচাংজুড়ে বাজেটের খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা-প্রশিক্ষণ হয়েছে সকাল-সন্ধ্যা। পৃথক-পৃথক সেশনে বাজেট নিয়ে আলোচনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক, প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ ডক্টর এম এম আকাশ, গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক মনোয়ার মোস্তফা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন অধ্যয়ন বিভাগের অধ্যাপক ডক্টর কাজী মারুফুল ইসলাম, গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের সহসভাপতি এ আর আমান প্রমুখ।

আয়োজকরা জানান, জাতীয় বাজেট বিশ্লেষণ করার কৌশলসহ গবেষণা দক্ষতার উন্নয়ন ঘটানো এবং চূড়ান্ত পরিসরে বাজেট বিশ্লেষক তৈরি করা ছিল এই ক্যাম্পের মূল উদ্দেশ্য। তরুণদের বিভিন্ন আলোচনা এবং বিষয়ভিত্তিক গবেষণা থেকে অনেক নতুন বিষয় উঠে এসেছে। যেগুলো আগামী দিনে বাজেট প্রণয়নের পথ প্রদর্শনে ভূমিকা রাখতে পারে।